বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ১২:৫০ পূর্বাহ্ন

সম্প্রচার বন্ধ, বিশ্বকাপ ফুটবল দেখতে পারছেন না সৌদি দর্শকরা

  • প্রকাশিত : রবিবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২২

মধ্যপ্রাচ্যের দেশ কাতারে চলছে ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপ। বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে বড় এই ক্রীড়া ইভেন্ট উপভোগে সারা বিশ্বের নজর এখন কাতারে। আর এই আসরে নিজেদের প্রথম ম্যাচে আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে রীতিমতো ইতিহাসই গড়ে ফেলেছিল সৌদি আরব।

এ নিয়ে মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশটি উল্লাসে মেতে উঠলেও এখন খবর বের হয়েছে যে, খোদ সৌদি আরবেই সম্প্রচার হচ্ছে না চলমান ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপ। এমনকি সম্প্রচার বন্ধের কোনও কারণও সামনে আনা হয়নি বলেই শোনা যাচ্ছে। শনিবার (২৬ নভেম্বর) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা এএফপি।

সৌদি আরবের গ্রাহকদের বরাত দিয়ে শনিবার প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ফুটবল বিশ্বকাপের অফিসিয়াল স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম কোনও ধরনের ব্যাখ্যা ছাড়াই সৌদি আরবে সম্প্রচার বন্ধ করে দিয়েছে বলে মনে হচ্ছে।

এএফপি বলছে, সৌদি আরবে ফুটবল বিশ্বকাপের অফিসিয়াল স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম হিসেবে রয়েছে টড টিভি। এটি কাতারি সম্প্রচারকারী বেইন (beIN) মিডিয়া গ্রুপের মালিকানাধীন। সৌদি আরবসহ পাঁচটি উপসাগরীয় দেশের মধ্যে সংকটের সময় টড টিভি সৌদিতে নিষিদ্ধ ছিল। তবে ২০২১ সালের অক্টোবরে ফের এই প্ল্যাটফর্মকে মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশটিতে সম্প্রচারের অনুমতি দেওয়া হয়।

সংবাদমাধ্যম বলছে, চলতি ফুটবল বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই চমক দেখিয়েছে সৌদি আরব। আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে দেয় তারা। কিন্তু সেই ম্যাচ নাকি সে দেশের লোকেরা দেখতেই পাননি। সৌদি আরবে ফুটবল বিশ্বকাপের সম্প্রচার বন্ধ বলে খবর বের হওয়ার পর এই তথ্য সামনে আসে। এই ঘটনায় বিরক্ত সৌদি আরবের বাসিন্দারা।

মূলত বিশ্বকাপের উদ্বোধনের পর থেকেই সৌদি আরবে সম্প্রচারে সমস্যা শুরু হয়। এই সমস্যার মাঝে সম্প্রচারকারী সংস্থা বেইন নিজেদের অংশীদার এবং গ্রাহকদের পাঠানো একটি বিবৃতিতে জানিয়েছে, ‘সৌদি আরবে বিশ্বকাপের সম্প্রচারে সমস্যা হচ্ছে। সমাধান এই মুহূর্তে আমাদের হাতের বাইরে। এই বিষয়ে পরবর্তী তথ্য জানিয়ে দেওয়া হবে।’

অবশ্য বিশ্বকাপ সম্প্রচারে সমস্যা নিয়ে এখনও পর্যন্ত কোনও তথ্য জানায়নি সৌদি সরকার। এছাড়া সৌদি সরকারও সম্প্রচারে বিঘ্ন ঘটা সম্পর্কে মন্তব্য করার অনুরোধে সাড়া দেয়নি। একইসঙ্গে সম্প্রচারকারী বেইনও এ বিষয়ে আরও মন্তব্য করতে অস্বীকার করেছে।

সৌদি আরবের সব জায়গায় যে একই সমস্যা হচ্ছে তা নয়। কেউ জানিয়েছেন, উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শুরু হওয়ার কিছুক্ষণ পর থেকে সমস্যা দেখা দেয়। আবার কেউ বলেছেন, এক এক সময় সম্প্রচার শুরু হচ্ছে। কিন্তু ১০-১৫ মিনিট পরে আবার তা বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। অনেকে তো নিজেদের টাকা ফেরতের দাবিও করেছেন।

এএফপি বলছে, টড টিভি মধ্যপ্রাচ্য এবং উত্তর আফ্রিকার ২৪টি দেশে অফিসিয়াল বিশ্বকাপ স্ট্রিমিং পরিষেবা হিসেবে খেলা সম্প্রচারের দায়িত্বে রয়েছে। সৌদি আরবের বেশ কিছু গ্রাহক শনিবার এএফপিকে বলেছেন, গত ২০ নভেম্বর বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার পর থেকে তারা সম্প্রচার দেখতে পারছেন না।

একজন জানিয়েছেন, উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সম্প্রচারের প্রায় এক ঘণ্টা আগে পরিষেবাটি পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যায়। অন্য একজন বলেছেন, পরিষেবাটি এখনও সংক্ষিপ্তভাবে কাজ করছে তবে ১০ মিনিটের মধ্যেই একটি ত্রুটি বার্তা স্ক্রিনে উপস্থিত হচ্ছে।

স্ক্রিনে প্রদর্শিত ওই ত্রুটি বার্তায় বলা হচ্ছে, ‘দুঃখিত, আপনার অনুরোধ করা পেইজটি মিডিয়া মন্ত্রণালয়ের নিয়ম লঙ্ঘন করছে।’

সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপে মদদ দেওয়ার অভিযোগে ২০১৭ সালের মাঝামাঝি সময়ে কাতারের সঙ্গে সকল প্রকার কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করে উপসাগীয় পাঁচ দেশ। সেসময় সৌদি আরব, মিশর, বাহরাইন, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও ইয়েমেন তেলসমৃদ্ধ কাতারের সঙ্গে সব ধরনের কূটনৈতিক সম্পর্ক ছিন্ন করেছিল। এই সময়ই কাতারের সম্প্রচারকারী সংস্থাকে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল।

২০২১ সালের জানুয়ারিতে দেশগুলোর সঙ্গে কাতারের সম্পর্ক ফের স্বাভাবিক হয়। কিন্তু সম্পর্ক স্বাভাবিক হওয়ার পর গত বছর সেই নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয় রিয়াদ। তবে বিশ্বকাপের সম্প্রচার নিয়ে আবারও শুরু হয়েছে বিতর্ক।

এছাড়া কাতারে ফিফা ফুটবল বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে একদিন আগেই মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশটিতে পৌঁছেছিলেন সৌদি আরবের ক্রাউন প্রিন্স ও প্রধানমন্ত্রী মোহাম্মদ বিন সালমান।

রাজধানী দোহায় পৌঁছানোর পর সৌদি আরবের ডি ফ্যাক্টো এই শাসককে সংবর্ধনা দেন কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল-থানির ডেপুটি শেখ আবদুল্লাহ বিন হামাদ আল-থানি।

এই বিভাগের আরও খবর