রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ০৬:১৯ পূর্বাহ্ন

হোটেল-মোটেলে ৯৫ শতাংশ বুকিং শেষ কুয়াকাটায়

  • প্রকাশিত : বুধবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০২১

একসঙ্গে তিনদিনের সরকারি ছুটি পাওয়ায় এরই মধ্যে ৯৫ শতাংশ হোটেল-মোটেল অগ্রিম বুকিং হয়ে গেছে কুয়াকাটায়। টানা তিনদিনের ছুটিতে পর্যটকদের পদচারণায় মুখর থাকবে কুয়াকাটা—এমনটাই জানিয়েছেন হোটেল-মোটেল ও পর্যটন ব্যবসায়ীরা।

আগামী ১৬ ডিসেম্বর (বৃহস্পতিবার) বিজয় দিবসের ছুটি পড়ছে। পরের দুইদিনও (শুক্রবার ও শনিবার) সরকারি ছুুটি। সে হিসাবে ১৬-১৮ ডিসেম্বর তিনদিনের ছুটি পাচ্ছেন সরকারি চাকরিজীবীরা। প্রিয়জনকে সঙ্গে নিয়ে ছুটি কাটাতে হোটেল-মোটেলে অগ্রিম বুকিংয়ের হিড়িক পড়েছে কুয়াকাটায়।

পটুয়াখালীর কুয়াকাটাকে বলা হয় ‘সাগরকন্যা’। এখানে একই স্থান থেকে সূর্যোদয় এবং সূর্যাস্ত দেখা যায়। নভেম্বর থেকে শুরু হয় পর্যটন মৌসুম। এরপর থেকে পাঁচ ছয় মাস পর্যটকে মুখর থাকে কুয়াকাটা।

ট্যুর অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন অব কুয়াকাটার (টোয়াক) প্রেসিডেন্ট রুমান ইমতিয়াজ তুষার বলেন, ‘কুয়াকাটায় পর্যটকদের ধারণক্ষমতা আট হাজার হলেও ১০ হাজারের বেশি পর্যটক আসার সম্ভাবনা রয়েছে। পায়রা সেতুসহ বেশকিছু উন্নয়নমূলক কাজ হওয়ার কারণে কুয়াকাটায় এখন খুব সহজে এবং ভালোভাবে আসা যায়। তাই পর্যটকদের আগমন বেড়েছে। তারই একটি প্রমাণ এই অগ্রিম বুকিং। এরইমধ্যে ৯৫ শতাংশ হোটেল-মোটেল অগ্রিম বুকিং হয়ে গেছে ।’

সমুদ্র বাড়ি রিসোর্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জহিরুল ইসলাম মিরন বলেন, ‘গত ১০ তারিখের আগেই আমাদের সবগুলো রুম বুকিং হয়েছে। আগামী ১৬ থেকে ২৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত সব কক্ষ অগ্রিম বুকিং দেওয়া আছে। নতুন কাউকে রুম দেওয়া সম্ভব নয়।’

কুয়াকাটা পর্যটন মোটেল অ্যান্ড ইয়ুথ ইনের পরিচালক শাহজাহান কবির বলেন, ‘আমাদের পর্যটন মোটেলে ৮০টির বেশি কক্ষ রয়েছে। তবে ৫ ডিসেম্বরের আগেই অগ্রিম বুকিং হয়েছে। এখন অনেক ফোন আসছে। কিন্তু কাউকে রুম দিতে পারছি না।’

ট্যুরিস্ট পুলিশ কুয়াকাটা জোনের সহকারী পুলিশ সুপার আব্দুল খালেক বলেন, ১৬ ডিসেম্বর পর্যাপ্ত পর্যটকদের সমাগম হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই আমরা অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন, মাস্ক পরিধানের নির্দেশসহ পর্যটকদের সার্বিক নিরাপত্তার ব্যবস্থা করে রেখেছি।

এই বিভাগের আরও খবর