শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ০২:৫৫ অপরাহ্ন

বছরে ৩৫ লাখ ইলেকট্রিক গাড়ি বিক্রি করবে টয়োটা

  • প্রকাশিত : বুধবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০২১

কার্বন নিঃসরণ শূন্যে নামানোর লক্ষ্যে ২০৩০ সালের মধ্যে প্রতিবছর ৩৫ লাখ ইলেকট্রিক গাড়ি বিক্রির ঘোষণা দিয়েছে জাপানের গাড়ি নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান টয়োটা মোটর করপোরেশন। স্থানীয় সময় মঙ্গলবার (১৪ ডিসেম্বর) কোম্পানিটির পক্ষ থেকে এ ঘোষণা দেওয়া হয়।

প্রতিষ্ঠানটির প্রেসিডেন্ট আকিও টয়োডা এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ইলেক্ট্রিক বা ব্যাটারিচালিত গাড়ি নির্মাণে দুই ট্রিলিয়ন ইয়েন (১৮ বিলিয়ন ডলার) বিনিয়োগ বাড়াবে টয়োটা, যেটি আগে এক দশমিক পাঁচ ট্রিলিয়ন ইয়েন ছিল। একই সঙ্গে ২০৩০ সালের মধ্যে ৩০ইভি মডেলের গাড়ি আনার ঘোষণাও দেন তিনি।

এর আগের প্রস্তাবে ২০২৫ সালের মধ্যে ১৫ মডেলের গাড়ি আনার প্রস্তাব করেছিল জাপানের বৃহত্তম এই প্রতিষ্ঠানটি। সেটি এবার দ্বিগুণ করার ঘোষণা দেওয়া হলো।

টয়োটা কর্তৃপক্ষ বলছে, বিভিন্ন অঞ্চলে জ্বালানি শক্তির ভিন্ন ভিন্ন অবস্থা রয়েছে। তা টয়োটা কার্বন নিরপেক্ষতার জন্য পছন্দসই প্রস্তাব দিয়ে বিভিন্ন দেশ ও অঞ্চলের পরিস্থিতি বিবেচনায় গাড়ির চাহিদা মেটাতে চায়।

এর আগে কোম্পানিটি জানিয়েছিল ২০৩০ সালের মধ্যে ৮০ লাখ ইলেকট্রিফাইড কার বিক্রির কথা। যার মধ্যে ২০ লাখ ব্যাটারিচালিত এবং জ্বালানি তেলচালিত।

কিন্তু প্রতিষ্ঠানটি এখন ঠিক করেছে ৩০ইভি মডেলের গাড়ির জন্য ৪ ট্রিলিয়ন ইয়েন (৩৫ বিলিয়ন) বিনিয়োগ করবে ২০৩০ সালের মধ্যে। যার মধ্যে ৮ ট্রিলিয়ন ইয়েন ব্যয় হবে ইলেকট্রিক গাড়ি নির্মাণে।

বিশ্ববাজারে বর্তমানে ছোট পরিসরে বিক্রি হচ্ছে ইলেকট্রিক কার। কিন্তু দিন দিন চাঙা হচ্ছে বাজার। গত নভেম্বরে টয়োটা ২০৪০ সালের মধ্যে জীবাশ্ম জ্বালানির গাড়িগুলোকে পর্যায়ক্রমে বন্ধ করার জন্য জেনারেল মোটরস এবং ফোর্ড মোটর কোম্পানিসহ ছয়টি বড় গাড়ি প্রস্তুতকারক দ্বারা সাক্ষরিত একটি অঙ্গীকারে যোগ দিতে অস্বীকৃতি জানায়। এটি যুক্তি দিয়েছিল যে বিশ্ব ততদিনেও গ্রিন কার রূপান্তর করতে প্রস্তুত হবে না।

যদিও টয়োটা পরে প্রতিশ্রুতি দেয় যে, এটি কার্বন শূন্য কার ২০৩৫ সালের মধ্যে বাজারে আনতে প্রস্তুত। ২০২৫ সালের মধ্যে উৎপাদন শুরু হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

সূত্র: জাপান টাইমস

এই বিভাগের আরও খবর